আবুল বাশার শেখ, ময়মনসিংহ প্রতিনিধি:২০১৪ সেপ্টেম্বর ২৮ ১৭:২৩:৪০ www.bd24live.com
অভাবের তাড়নায় পাওনাদের সামান্য কয়েক টাকা পরিশোধের জন্য নাড়ীছেঁড়া ধন ৫দিনের নবজাতক ছেলে সন্তানটিকে দশ হাজার টাকার বিনিময়ে অন্যের হাতে তুলে দিলেন এক মা।
জানা যায়, ময়মনসিংহের গৌরিপুর উপজেলার কালিহাতী গ্রামের সাইফুল ইসলামের মেয়ে মদিনা খাতুন রুমা (২০) স্বামী খাইরুল ইসলামকে নিয়ে শ্রীপুর উপজেলার তেলিহাটি ইউনিয়নের আবদার গ্রামের রুহুল আমিনের ছেলে মাসুদুজ্জামান এর বাসায় ভাড়া থেকে একটি গামেন্টসে চাকুরী করতো। কিছুদিন পূর্বে ঝগড়া লেগে খাইরুল ইসলাম অন্তসত্ত্বা রুমাকে একা ফেলে চলে যায়। গত ১৯ সেপ্টেম্বর রুমা একটি ছেলে সন্তান জন্ম দেন।
এ অবস্থায় রুমা তার সন্তান নিয়ে বাসা ছেড়ে চলে যেতে চাইলে বাসা ভাড়া তিন হাজার ও দোকান বাকি তিন হাজার টাকা দাবি করে পাওনাদাররা। রুমা অপরগতা প্রকাশ করলে একই এলাকার নিজাম উদ্দিন পিতা মৃত. হুসেন আলী বিভিন্ন ভয়ভিতি প্রদর্শন করে এলাকার কতিপয় লোকদের নিয়ে ভালুকা উপজেলার গোয়ারী গ্রামের নিঃসন্তান দম্পতি রফিকুল ইসলাম ও নারগিছ আক্তারের কাছে ১০,০০০ (দশ হাজার) টাকায় নবজাতকটিকে বিক্রি করে দেয়। এ সময় রুমার কাছ থেকে জোর পূর্বক ছেলে দত্তকের একটি ষ্ট্যাম্পে স্বাক্ষর করিয়ে নেয় হয়।
এ ঘটনা প্রকাশ হলে স্থানীয় সাংবাদিকরা তথ্য নিতে গেলে ঔই এলাকার মেম্বার ও দালাল নিজাম উদ্দিনের ছেলে সহ কতিপয় বখাটে সাংবাদিকদের সাথে খারাপ আচরণ ও বিভিন্ন হুমকি প্রদর্শন করে।
সন্তান হারানো রুমা জানান, অভাবের তাড়ানায় বিভিন্ন চাপে পড়ে সন্তান লালন পালন করার ক্ষমতা না থাকায় বাধ্য হয়ে ১০,০০০ (দশ হাজার) টাকায় সন্তানটিকে বিক্রি করেছি কিন্তু বিক্রির সম্পূর্ণ টাকা আমাকে দেয়া হয়নি।